Daily Sylhet Sangbad - Latest Bangla News অবশেষে প্রশাসনের হস্তক্ষেপে চাউলধনী হাওরের সীমানা জটিলতা নিরসন
বৃহস্পতিবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৪:০৩ পূর্বাহ্ন

সিলেট



নিজস্ব প্রতিবেদন

প্রকাশ: ২০২২-০৯-২০ ০৬:০৭:৪১


অবশেষে প্রশাসনের হস্তক্ষেপে চাউলধনী হাওরের সীমানা জটিলতা নিরসন

অবশেষে উপজেলা প্রশাসনের হস্তক্ষেপে সিলেটের বিশ্বনাথের সর্ববৃহৎ চাউলধনী হাওরের সীমানা জটিলতাসহ লীজ গ্রহীতা ও ২৫ গ্রামের কৃষকদের দ্বন্ধ নিরসন করা হয়েছে।

সম্প্রতি উপজেলা প্রশাসনিক ভবনের কনফারেন্স হলে উপজেলার গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ, জনপ্রতিনিধি ও সাংবাদিকদের উপস্থিতে লীজ গ্রহীতা এবং কৃষক আন্দোলনের নেতাদের নিয়ে এক সমঝোতা বৈঠকের মাধ্যমে হাওরের সীমানা জটিলতা ও মাছ ধরা নিয়ে সৃষ্ট সমস্যা নিরসন করা হয়।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নুসরাত জাহানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সমঝোতা বৈঠকে সীমানা জটিলতা ও কৃষকদের সমস্যা তুলে ধরে বক্তব্য রাখেন, চাউলধনী হাওর ও কৃষক বাঁচাও আন্দোলন কমিটির আহবায়ক উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতা আবুল কালাম, যুগ্ম-আহবায়ক দৌলতপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি হাজী আরিফ উল্লাহ সিতাব, সামছুদ্দিন মেম্বার ও মালানা ছমির উদ্দিন।

অন্যদিকে লীজকৃত জায়গায় মাছ ধরার নানা অসুবিধা তুলে ধরে লীজ গ্রহীতাদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন দশঘর মৎস্যজীবী সমবায় সমিতি লিমিটেডের সভাপতি আরকান আলী ও সাবেক সভাপতি আব্দুল জলিল।

গত ১৪ সেপ্টেম্বর বিকেলে অনুষ্ঠিত হওয়া ওই সমঝে লীজ গ্রহীতা ও আন্দোলন কমিটির নেতাদের পক্ষে বিপক্ষে বক্তব্য শুনার পর দিকনির্দেশনা দেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নুসরাত জাহান, উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) আসমা জাহান সরকার ও বিশ্বনাথ থানার ওসি গাজী আতাউর রহমান।

বক্তব্যে তারা বলেন, বর্তমানে হাওর পানি থাকায় সীমানা নির্ধারণ করা সম্ভব হবেনা। তবে, আগামিতে ডিজটাল পদ্দতিতে যতে হাওরের সীমানা নির্ধারণ করা হয় সে ব্যবস্থার জন্য উর্ধতন কৃর্তপক্ষকে জানানো হবে।

কোন প্রকার দাঙ্গা হাঙ্গামা না করে লীজ গ্রহীতারা লীজের আনুমানিক সীমানায় থেকে মাছ ধরে বিক্রি করতে পারবেন। তবে, হাওর শুকিয়ে মাছ ধওে বিক্রি করতে পারবেন না। আর কৃষক নেতারাসহ হাওরের কৃষকরা তাদের জমিতে চাষাবাদসহ মাছ ধরতে পারবেন তবে, বিক্রি করতে পারবেন না।

যদি কোথাও সীমানা নিয়ে জটিলতার সৃস্টি হয় তাহলে তাৎক্ষনিকভাবে বিষয়টি সামাধান করে দেওয়া হবে। এতে যারা অন্যায় করবেন তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এর আগে ওই বৈঠকে বক্তব্য রাখেন উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক ফারুক আহমদ, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট সিরাজুল ইসলাম সিরাজ, বিশ্বনাথ সরকারি ডিগি কলেজের অধ্যক্ষ মানিক মিয়া, বিশ্বনাথ সদর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ছয়ফুল হক, অলংকারী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নাজমুল ইসলাম রুহেল, রামপাশা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট আলমগীর হোসেন, দশঘর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এমাদ উদ্দিন খান, দৌলতপুর ইউনিয়নের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান নুর উদ্দিন।

প্রসঙ্গত, চাউধনী হাওর নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে দ্বন্ধ চলছে কৃষক ও লীজ গ্রহীতাদের মধ্যে। এবিষয়কে কেন্দ্র করে ২০২১ সালের ০১মে চাউধনী হাওরের লীজ গ্রহীতাদের ফাউন্ডার যুক্তরাজ্য প্রবাসী সাইফল আলমের গুলিতে নিহত হন স্কুলছাত্র সুমলে মিয়া। ওই বছরের ২১ অক্টোবর ঢাকায় গ্রেপ্তার হন সাইফুল আলম। বর্তমানে তিনি জেল হাজতে রয়েছেন।

এরআগে ২০২১ সালের ২৮ জানুয়ারি হাওরে পানি সেচকে কেন্দ্র করে নিহত হন কৃষক ছরকুম আলী দয়াল (৭০)। এনিয়ে থানায় পৃথক হত্যা মামলা রয়েছে।


ডেসিস/জেকে ২০ সেপ্টেম্বর ২০২২ইং

শেয়ার করুন

পাঠকের মতামত

এ বিভাগের আরো সংবাদ

Google Ad Code Here