মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪, ০৩:২৭ পূর্বাহ্ন

জাতীয়



নিজস্ব প্রতিবেদন

প্রকাশ: ২০২৪-০৭-০২ ০৯:১১:৩৯


বরখাস্তের চারদিন পর উচ্চ-আদালতের নির্দেশে স্বপদে বহাল মেয়র মুহিবুর রহমান!

ছবি, বিশ্বনাথ পৌরসভার মেয়র মুহিবুর রহমান

বখাস্তের ৪দিনপর সিলেটের বিশ্বনাথ পৌরসভার মেয়র মুহিবুর রহমানকে স্বপদে বহাল থাকার নির্দেশ দিয়েছে  হাইকোর্ট ।  সোমবার (০১ জুলাই) হাইকোর্টের বিচারক নাঈম হায়দার ও কাজী জীনাত হক এর ব্যাঞ্চ মেয়র মুবিুর রহমানের বরখাস্তের আদেশ স্থগিত করে এই নির্দেশ দেন। যেকারণে আইনী লড়াই শেষে স্বপদেই ফিরেছেন পৌরসভার মেয়র মুহিবুর রহমান।

এর আগে কাউন্সিলরদের অভিযোগের প্রেক্ষিতে গত বৃহস্পতিবার (২৭জুন) স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ-সচিব মো. আব্দুর রহমান স্বাক্ষরতি এক প্রজ্ঞাপনে মেয়র মুহিবুর রহমানকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়।

এতে পৌর পরিষদের মাসিক সাধারণ সভা তার নিজ বাসভবনে অনুষ্ঠান করা, শহর সমন্বয় (টিএলসিসি) কমিটির সভা না করাসহ আরও নানা অভিযোগের সত্যতা পাওয়া এবং পদে থেকে স্থানীয় সরকার বিভাগের অনুমতি না নিয়ে গত ২৪ জুন যুক্তরাজ্য যাওয়া বেআইনী। যারফলে মেয়র মুহিবুর রহমানকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়।

এদিকে বরখাস্তের ৪দিনের মাথায় গত ৩০জুন রোববার মেয়র মুহিবুর রহমান তার কৌশলী দেশের সংবিধান বিশেষজ্ঞ ড. শাহদীন মালিকের মাধ্যমে বরখাস্তের আদেশের বিরুদ্ধে হাইকোর্টে রিট করেন, (রিট পিটিশন নাম্বার ৮৩২৩/২৪)।

আর সোমবার (০১ জুলাই) হাইকোটের ৮নং মেইন বিল্ডিংয়ে ওই রিটের শুনানী হয়। শুনানী শেষে হাইকোর্টের বিচারক নাঈম হায়দার ও কাজী জীনাত হক এর ব্যাঞ্চ মেয়র মুবিুর রহমানের বরখাস্তের আদেশ স্থগিত করার নির্দেশ দেন। ফলে স্বপদে বহাল থাকাতে আর কোন বাধা নেই।

এ-প্রসঙ্গে ড. শাহীদ মালিক এ-প্রতিবেদককে বলেন, মেয়র মুহিবুর রহমানের যে সাময়িক বরখাস্তের আদেশ হয়েছিলো, এটা সম্পূর্ণ অন্যায় ছিলো, বেআইনী ছিলো।

সোমবার কোর্টে দাঁড়িয়ে কেন বেআনী তার ব্যাখ্যা দিলাম, বল্লাম যে ওই আদেশ আইনবর্হিভূত এবং এটা হতে পারেনা। তাই আদালতের বিচারক রোল জারি করে সাময়কি বরখাস্তের আদেশটি স্থগিত করেছেন। ফলে মেয়র তার স্বপদে ফিরে যেতে পা রবেন।

এ-প্রসঙ্গে বিশ্বনাথ পৌরসভার মেয়র মুহিবুর রহমান বলেন, দেশের প্রখ্যাত আইনজীবী ড. শাহদীন মালিক ও তাঁর সহযোগীদের প্রচেষ্ঠায় মহামান্য হাইকোর্টে আমি ন্যায়-বিচার পেয়েছি। কারণ আমাকে অন্যায়ভাবে প্রভাবশালী একটি স্বার্থান্বেষী মহল নিজেদের স্বার্থ উদ্ধারের জন্য অন্যায় ও বেআনীভাবে মেয়র পদ থেকে অপসারণ করতে চেয়েছিলো কিন্তু পারেনি।


ডেসিস/জেকে/০২ জুলাই ২০২৪ইং

শেয়ার করুন

পাঠকের মতামত

এ বিভাগের আরো সংবাদ

Sidebar Google Ad Code